বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩  |   ২০ °সে

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০০:০২

চলন্ত ট্রেনে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, টিটিই গ্রেফতার

চলন্ত ট্রেনে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, টিটিই গ্রেফতার
অনলাইন ডেস্ক

খোদ টিটিই’র ষড়যন্ত্রে চলন্ত ট্রেনে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মাদক মেশানো পানি খাইয়ে অচেতন করে তাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয় বলে দাবি নির্যাতিতার। উত্তরপ্রদেশের লিংক এক্সপ্রেসের এসি কোচের এই ঘটনায় নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। ভুক্তভোগীর অভিযোগেরভিত্তিতে টিটিই’কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকিদের খোঁজে চলছে জোর তল্লাশি।

জানা গেছে, গত ১৬ জানুয়ারি আড়াই বছরের ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে স্টেশনে দাঁড়িয়েছিলেন ওই নারী। সেই সময় টিটিই রাজু সিংয়ের সঙ্গে দেখা হয়ে যায় তার। টিটিই-কে আগে থেকেই চিনতেন গৃহবধূ।

নির্যাতিতার দাবি, টিটিই তাকে লিংক এক্সপ্রেসের এসি কোচে উঠে বসতে বলেন। সেই অনুযায়ী তিনি উঠে পড়েন। এরপর রাত সাড়ে নয়টার তার কাছে আসেন টিটিই ও অন্য একজন ব্যক্তি। খাবার খাওয়ার অনুরোধ করেন তারা। তবে গৃহবধূ খাবার খেতে চাননি। এরপর পানি পান করতে দেন নির্যাতিতাকে। টিটিই’র দেওয়া পানি খাওয়ার পর তিনি অচেতন হয়ে পড়েন বলে অভিযোগ।

গৃহবধূর আরও দাবি, সেই সুযোগেই টিটিই ও তার সহযোগী তাকে ধর্ষণ করে। জ্ঞান ফিরলেও নির্যাতিতা সেই সময় চিৎকার করতে পারেননি। তিনি যাতে কাউকে এ বিষয়ে কিছু না বলেন, সেই হুমকি দেওয়া হয় বলেও দাবি নির্যাতিতার।

পরদিন গন্তব্যে পৌঁছান ওই গৃহবধূ। তবে ধর্ষণের বিষয়ে কাউকে কিছু জানাননি তিনি। এরপর ২০ জানুয়ারি বাড়িতে পৌঁছান গৃহবধূ। স্বামীকে পুরো ঘটনাটি জানান। রেলওয়ে হেল্পলাইনে অভিযোগ জানান তারা। সেই অনুযায়ী শুরু হয় তদন্ত।

রেলওয়ে পুলিশ সুপার অপর্ণা গুপ্তা নির্যাতিতার অভিযোগ রেকর্ড করেন। শুরু হয় তদন্ত। টিটিই’র বাড়িতে হানা দেয় রেলপুলিশ। তাকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে চলছে জোর তল্লাশি।

নির্যাতিতার শারীরিক পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়েছে। যদিও ধর্ষণ হয়েছে কি না, তার রিপোর্ট এখনো পাওয়া যায়নি।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়